• ঢাকা
  • শনিবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০২১, ৩ মাঘ ১৪২৭
Bangla Bazaar
Bongosoft Ltd.

আগারগাঁও এখন রংপুরে!


বেরোবি প্রতিনিধি | বাংলাবাজার প্রকাশিত: নভেম্বর ২৫, ২০২০, ০১:১৯ পিএম আগারগাঁও এখন রংপুরে!
ছবি: নিজস্ব

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে পড়ে স্নাতক (সম্মান) ও মাস্টার্স শেষ সেমিস্টার-এর পরীক্ষা গ্রহণের জন্য মতামত চেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার স্বাক্ষরিত বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) বরাবর প্রেরিত পত্রে ইউজিসির ঠিকানা আগারগাঁও, ঢাকা এর জায়গায় আগারগাঁও, রংপুর লিখা একটি পত্র সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে ব্যাপক ভাইরাল হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের মত এমন একটা জায়গায় এমন ভুল নিয়ে সামাজিক যোগযোগ মাধ্যম ফেসবুকসহ বিভিন্ন মহলে চলছে সমালোচনা ঝড়। এটি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের চড়ম উদাসীনতা ছাড়া আর কিছুই নয় বলেও মনে করছেন অনেকে।

মঙ্গলবার (২৪ নভেম্বর) বিকেলের পর বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার আবু হেনা মুস্তফা কামাল স্বাক্ষরিত পত্রটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বেশ ভাইরাল হয়ে পড়ে। পরে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের নজরে আসলে তা সংশোধন করে পুনরায় ইউজিসিতে পাঠানো হয় বলে জানা গেছে।

এদিকে পত্রটি দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের একটি গ্রুপে পোস্ট করলে সেখানে ফরহাদ কবির নামের একজন কমেন্ট করেন- ‘অযোগ্য লোককে বসালে সবসময় এরকম ভুল হবেই, এটা বেরোবির জন্য প্রতিদিনের ডালভাতের মতো…’।

মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন নামের আরেক ব্যক্তি কমেন্ট করে বলেন- ‘খোদা বাঁচাও এটাই দেখার বাকি ছিলো, এতো বড় প্রতিষ্ঠান কর্মকর্তা এতো বড় ভুল কেমনে করে। ঢাকা এখন রংপুর হলো। এটা তো জানতাম না।’

ইমরান আকন্ত নামের এক ব্যক্তি পত্রটি দিয়ে তার ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডিতে পোস্ট করেন- ‘একটা বিশ্ববিদ্যালয়ে কতটা তেলবাজি থাকলে ঢাকার আগারগাঁও রংপুরে আসে, এটা ১৭কোটি মানুষের নিমিষেই জানা হয়ে যায়।’ এই পোস্টে জুবায়ের হাসান নিলয় কমেন্ট করে বলেন- ‘এদের মত মানুষদের জন্যই বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মান এখন দিনকে দিন তলানিতে।’ এইচ. এম. আল আমিন নামের অপর একজন কমেন্ট করে বলেন ‘বলার ভাষা হারিয়ে ফেলেছি।’

প্রসঙ্গত, করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে অনার্স চূড়ান্ত পরীক্ষা নেওয়ার দাবিতে ঢাকা-কুড়িগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করে আন্দোলন করেন বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) শিক্ষার্থীরা। স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা নেয়ার জন্য আজ অথবা কালকের মধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) কাছে চিঠি দিয়ে পরীক্ষা নেয়ার ব্যাপারে সম্মতি চাওয়া হবে, প্রশাসনের এরকম আশ্বাসের ভিত্তিতে মহাসড়ক থেকে অবরোধ তুলে নেন শিক্ষার্থীরা।

এর আগে সকাল ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই নম্বর ফটক সংলগ্ন পার্কের মোড়ে একই দাবিতে মানবন্ধন করেন শিক্ষার্থীরা। মানববন্ধনে বাংলা, ইংরেজী, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ, পদার্থ, রসায়ন ও ইইইসহ বিভিন্ন বিভাগের প্রায় কয়েক শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।