• ঢাকা
  • শনিবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০২১, ৩ মাঘ ১৪২৭
Bangla Bazaar
Bongosoft Ltd.

সাধারণ গলাব্যথা না করোনা, বুঝবেন কীভাবে


বাংলাবাজার ডেস্ক | বাংলাবাজার প্রকাশিত: ডিসেম্বর ১৩, ২০২০, ১১:৪২ পিএম সাধারণ গলাব্যথা না করোনা, বুঝবেন কীভাবে
ছবি: সংগৃহীত

শীতে জ্বর, সর্দি-কাশি ও গলাব্যথায় ভুগছেন অনেকেই। অন্য কোনো উপসর্গ না থাকলেও গলায় হালকা ব্যথা হলেও হয়তো ভয় পাচ্ছেন। সাধারণ গলাব্যথা না করোনার কারণে গলাব্যথা বুঝবেন কীভাবে? চিকিৎসকরা বলছেন, গলাব্যথা হলেই সেটি যে করোনা তা কিন্তু একেবারেই নয়। ভাইরাল ইনফেকশন হলেও গলাব্যথা হতে পারে।

সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনের বক্তব্য অনুযায়ী, আবহাওয়ার পরিবর্তনের কারণে জ্বর, সর্দি, কাশির পাশাপাশি এই সময় গলাব্যথাও হচ্ছে বহু মানুষের। তবে গলাব্যথার সব লক্ষণই কিন্তু কোভিড নয়।

গলাব্যথা কেন হয়?

গলাব্যথার মূল কারণ ইনফেকশন। গলায় হালকা ব্যথা, অস্বস্তি, গলা শুকিয়ে যাওয়া সবই হতে পারে ইনফেকশন থেকে বা বাতাসের কারণে।

গলাব্যথা করোনার সাধারণ লক্ষণ

সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনের রিপোর্ট অনুযায়ী, সাধারণ সর্দি এবং ফ্লুর লক্ষণের পাশাপাশি গলাব্যথাও করোনার লক্ষণ।

করোনাভাইরাস সহজে নাক দিয়ে শরীরে ঢুকতে পারে। এর পর গলায় পৌঁছায়, সেই কারণে গলাব্যথা হয়। তবে এ উপসর্গ এক ব্যক্তি থেকে অন্য ব্যক্তিতে খুব কম ছড়ায়। সাধারণ সর্দি-কাশি, ফ্লু এবং শ্বাসকষ্ট থাকলেও গলার সমস্যা দেখা দিতে পারে। শুষ্ক বাতাসের কারণেও আপনি গলাব্যথা অনুভব করতে পারেন। অ্যালার্জি থাকলেও গলার সমস্যা দেখা দিতে পারে।

সাধারণ গলাব্যথা না করোনাভাইরাস

করোনা আক্রান্তের গলাব্যথা তখনই হয়, যখন ভাইরাস মেমব্রেনসে ঢুকে যেটি নাক ও গলার সঙ্গে যুক্ত। ফলে নাক ও গলা ফুলে যায়। সংক্রামিত ব্যক্তির যে ব্যথা অনুভূত হয়, তাকে ‘ফ্যারঞ্জাইটিস’ বলা হয়।

একইভাবে সাধারণ সর্দি এবং অন্যান্য ফ্লু জাতীয় অবস্থার ক্ষেত্রে গলাব্যথা শুরু হয়। তবে করোনাভাইরাসের কারণে যদি গলাব্যথা হয়, তা হলে আক্রান্ত রোগীর জ্বর, শুকনো কাশি এবং ক্লান্তির মতো অন্যান্য লক্ষণ দেখা দেবে ও সঙ্গে গলাতে ব্যথা অনুভব হবে।

আর যদি শুধু গলাব্যথা হয়, অন্য কোনো লক্ষণ না দেখা দেয় তা হলে ভয়ের কিছু নেই।

গলাব্যথা হলে কী করবেন 

এ সময় গলাব্যথা হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। ওষুধ ও ঘরোয়া প্রতিকারের মাধ্যমে গলাব্যথার চিকিৎসা করা যেতে পারে।

বাংলাবাজার /এম এস